Budget Beast – realme 5i In Depth Review

0

রিয়েলমি আফিশিয়াললি বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করার পরে রিয়েলমির দুটো ফোন তারা রিলিজ করেছে। তার প্রথম ফোনটি হচ্ছে “Realme C2” এটার রিভিউ দেখতে এখনে ক্লিক করুন। আর দিত্বীয় ফোনটি হচ্ছে “Realme 5i” আজকে আমরা  “Realme 5i” নিয়ে আলোচনা করবো। প্রায় ১৫-দিনেরও বেশি সময় নিয়ে আমরা “Realme 5i” ফোনটি ব্যাবহার করছি।  আমাদের আভিজ্ঞতা পাশাপাশি এই ফোনটির ভাল-দিক, মন্দ-দিক কি আছে সেগুলো জানাব। ফোনটি মনে হয় প্রথম কোন ফোন যেটা আনফিশিয়ালি যেই দামে বিক্রি হচ্ছে আফিশিয়ালিও সেই দামে বিক্রি হচ্ছে। এই ফোনটির মূল্য হচ্ছে “১২,৯৯০ টাকা” আফিশিয়ালি। এবং আনঅফিশিয়ালিও ১৩,০০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

স্পেসিফিকেশন (Specification):

  • Display: 6.5 inch IPS LCD HD+
  • RAM & ROM: 3GB/4GB & 32GB/64GB.
  • Processor: 2.0GHz Octa core Qualcomm Snapdragon 665 processor.
  • Rear Camera: 12MP Main + 8MP Ultra Wide + 2MP Depth + 2MP Macro.
  • Front Camera: 8 Megapixel.
  • Battery: 5000 mAh.
  • Other: Android 9 Pie, Fingerprint Scanner.
  • Price: ৳12,990.

ডিজাইন এবং বিল্ড (Design & Build):

“Realme 5i” হাতে নেয়ার পরে প্রথম যেই জিনিসটা চোখে পড়ে তা হচ্ছে এর সানরাইজ ডিজাইন। আমাদের কাছে আনেকটা Deep Ocean ডিজাইনের মত। এটার নাম Deep Ocean দিলে মনে হয় আরেকটু ভাল হতো। খেয়াল করলে দেখবেন বাম পাশের নিচ থেকে এক ধরণের ইফেক্ট তৈরি হয় আনেকটা সানরাইজের মত। এটা সব ধরনের লাইটেই হয়। এটা একটা ভাল জিনিষ। এটা দুইটা কালারে পাওয়া যায় Blue এবং Green। আমাদের কাছে এখন Blue কালারের ফোনটি রয়েছে। এই ফোনটির Height-164.4mm,  Width-75.omm, Thickness-9.3mm & Weight-195g.

এই ফোনটি হালকা লম্বা টাইপের যা আপনি হাতে নেয়ার পর বুঝতে পারবেন। তবে এটা রেগুলার সাইজের হাতে সমস্যা হবে না। যেহেতু মোটামোটি বাজেটের ফোন তাই প্ল্যাস্টিক বিল্ডের। প্ল্যাস্টিক বিল্ড হলেও পিছনের দিকে একটা Texure ব্যাবহার করা হয়েছে যেটা হাতে বেশ ভালো Griip দেয়.। এবং এই Texure টা একটা  স্পেশাল প্রসেসে তৈরি করা হয়েছে যা নিয়ে রিয়েলমি বেশ গর্ভিত।

বাটন এবং পোর্টস (Buttons and Ports):

এই ফোনের সাইডের বাটন গুলো খোদাই করে একটু ভিতরের দিকে দেয়া হয়েছে, যাতে পকেটে ডুকাতে কিংবা বের করেতে বাটনে আটকে না যায়। ফোনের বডির উপরের দিকে কিছুই নেই, নিচের দিকে 3.5 mm আডিও জ্যাক, Microphone, Micro USB Port এবং একটি বটম ফায়ারিং স্পিকার রয়েছে। 

আর বাম পাশে ভলিউম বাটনের পাশে রয়েছে Dual Nano Sim Card Slot যেটাতে একটি ডেটিকেটেট ম্যামোরি কার্ডের স্লট ও পেয়ে যাচ্ছেন যেটাতে আপনারা 256-GB পর্যন্ত Expand করতে পারবেন। এবং ডান পাশে শুধু পাওয়ার বাটন। বাটন গুলো বেশ Clicky এবং Tactile ছিল।

ডিসপ্লে (Display):

সামনে ব্যাবহার করা হয়েছে 6.5 inch-এর বড় ডিসপ্লে। তবে সমস্যা হচ্ছে এর Resolution মাত্র 720 x 1600 pixels বা HD+. বুঝতেই পারছেন যেহেতু ডিসপ্লে বড় কিন্তু Resolution কম তাই Sharpness -এ কিছুটা ঘাটতি থাকবে। তবে এই ডিসপ্লের কালার ঠিক আছে। ব্রাইটনেসও ঠিকঠাক ছিল, ইনডোরে কোন সমস্যা হবে না আর আউটডোরে ডিরেক্ট সানলাইট ছাড়া ছায়ায় ভিজিবিলিটি ভালো পেয়েছি। ডিসপ্লের উপরে একটি Water Drop Notch ব্যাবহার করা হয়েছে।আর দুই পাশের ব্যাজেল গুলোও বেশ ন্যারো। Screen Protection হিসেবে দেওয়া হয়েছে Corning Gorilla Glass 3+।

পারফর্মেন্স (Performance):

পিছনের ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্কানার ঠিক যায়গাতেই আছে। সাথে ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্কানের স্পীডও খুব ভাল, আর এটাতে ফেস-আনলক ব্যাবহার করা হয়েছে, ফেস-আনলক এর স্পীডও ভাল।

এই ফোনটি 3GB এবং 4GB “LPDDR4X”  র‍্যামের পাওয়া যাবে। সাথে 32GB & 64GB ইন্টারন্যাল ইস্টোরেজ পাওয়া যাবে।

CPU  হচ্ছে 64 Bit, 2.0 GHz, Octa core (2 GHz, Quad core, Kryo 260 + 1.8 GHz, Quad core, Kryo 260)

গেমিং পারফমেন্স খুব ভাল ছিল। আমরা এটাতে PUBG Mobile খেলেছি Medium Graphics ভালো Smoothly  চলে ডিফোল্ট সাপর্ট করে। তবে গেমিং নিয়ে এই বাজেটের ফোনগুলোতে খুব বেশি আশা করেনা মানুষ। এই বাজেটের মধ্যে যতোটুক গেমিং শক্তি ধরকার তা করা হয়েছে।

সফটওয়্যার এবং ইউআই (Software and UI):

এই ফোনটির সফটওয়্যার হিসেবে দেওয়া হয়েছে Android 9.0 (Pie)। আর এর UI টি বেশ অপ্টিমাইজড (ColorOS 6.0.1 realme edition)। এই ডিবাইসের পুরো সিস্টামে Drack Mode রয়েছে এটা একটা ভাল জিনিষ। এটাতে অ্যাপ ড্রয়ার আছে। এটাতে  Snapdragon 665 processor ব্যাবহার করা হয়েছে। Relme 5i এর  GPU হল Adreno 610.

ক্যামেরা (Camera):

পিছনের ক্যামেরা (Back Camera):

এটাকে Realme বলছে Cort camera king। পিছনে চারটি ক্যামেরা ব্যাবহার করা হয়েছে। 12MP Main + 8MP Ultra Wide + 2MP Depth + 2MP Macro এই হচ্ছে পিছনের চারটা ক্যামেরা।পিছনের ক্যামেরা দিয়ে 4K @ 30 fps Video Recording করা যাবে। নিচে কিছু ছবির স্যাম্পল দেওয়া হল।

সামনের ক্যামেরা (Font Camera):

সামনে 8 Megapixel ক্যামেরা ব্যাবহার করা হয়েছে। এবং সামনের ক্যামেরা দিয়ে Full HD @ 30 fps Video Recording করা যাবে Slow-motion Full HD @ 120 fps তে।  নিচে কিছু ছবির স্যাম্পল দেওয়া হল।

ব্যাটারি (Battery):

এই ফোনে 5000mAh ব্যাটারি ব্যাবহার করা হয়েছে। যা এই ফোনের আরো একটি ভাল দিক। আপনারা যদি মোটামুটি ব্যাবহার করেন তাহলে পুরো ২-দিন চলে যাবে আর যদি হেবি ব্যাবহার করেন তাহলে ১-দিন চলে যাবে। বক্রে 10W একটা চার্জার দেয়া হয় যা দিয়ে ৩-ঘণ্টার মত সময় লেগে যাবে ফুল চার্জ হতে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here