realme C2 Full Review – A great bank for buck

0

সম্প্রতি বাংলাদেশের বাজারে অফিসিয়াল ভাবে রিলিজ হওয়া ফোন “Realme C2” আমাদের কাছে এসে পৌছেছে।  এই ফোনটির মুল্য ৮,৯৯০-টাকা। দুই সপ্তাহের ও বেশী সময় ইউজ করার পর এই ফোনটি নিয়ে আমাদের কি ভাবনা, মতামত তা আজ শেয়ার করবো আপনাদের সাথে।  

স্পেসিফিকেশন (Specification):

  • Display: 6.01 inch HD+ (1520 x 720) IPS LCD Display.
  •  RAM & ROM: 2GB & 3GB + 16GB & 32GB.
  • Processor: Mediatek MT6761 Helio P22, Quad-core 2.0 GHz Cortex-A53 
  •  Rear Camera: 13 + 2 megapixel.
  • Front Camera:  5 megapixel.
  • Battery Capacity: 4000mAh .
  • Expandable storage up to: 128 GB.
  • Other: Android 9 (Pie)

ডিজাইন এবং বিল্ড (Design & Build):

এই ফোনটির Build-material হচ্ছে Plastic.   Glass front (Gorilla Glass 3). Weight: 166 grams (5.86 oz)। ফোনটির উপরের দিকে আছে Water drop Notch। এবং Notch-এ আছে Front ক্যামেরা।  ফোনটি পুরনো হলেও এর Design এখনো Unique রয়েছে।খেয়াল করলে মোবাইল এর পিছনে দেখা যাবে এটাতে একটি Diamond Card Design দেয়া হয়েছে। আমরা যদিও রিয়েলমির আরো দুই-একটা মডেলে এই ডিজাইনটি দেখেছি তবে “Realme C2″-তে Matte finish দেয়া হয়েছে। তাই অন্য ডিভাইসগুলোর থেকে এই ডিভাইসের Back Part Design আলাদা। এ কারণে এই ডিভাইসটি আমাদের কাছে খুবই ভালো লেগেছে।

ডিসপ্লে (Display):

এই ফোনটিতে রয়েছে 6.01 inch HD+ (1520 x 720 Resolution) IPS LCD Display. 19.5.9 ratio। এবং Screen to Body ratio 80%  ডিসপ্লেটি বেশ ColorFul এবং Brightness রয়েছে প্রর্যাপ্ত পরিমাণে। তবে Resolution 720p হলেও তেমন কোন সমস্যা আমাদের চোখে পড়েনি। এটাতে ভিডিও দেখার অভিজ্ঞতা অনেক ভালো ছিল, কালার Negativity একদম ছিল না। উল্লেখ করার মতো ডিসপ্লেতে কোন সমস্যা আমরা পাই নি।

বাটন এবং পোর্টস (Buttons and Ports):

ফোনটির উপরের দিকে কিছুই নেই তবে নিচের দিকে আছে Micro USB Port, Speaker এবং 3.5mm অডিও জ্যাক।  ডান পাশে আছে Power Button। বাম পাশে Volume Button এবং Dual Nano SIM Card Slot এবং 128-GB পর্যন্ত Dedicated Memory card slot। 

সফটওয়্যার এবং ইউআই (Software and UI):

এই ফোনটির সফটওয়্যার হিসেবে দেওয়া হয়েছে Android 9 Pie, CPU হচ্ছেঃ Quad-core 2.0 GHz Cortex-A53।  এই ফোন থেকে অনন্য কাজ গুলো মোটামোটি করা যাবে। এটি দিয়ে ব্রাউজিং কিংবা ডে-টু-ডে সকল কাজ গুলো মোটামোটি ভাবে চালিয়ে নেয়া যাবে। বাজেট হিসেবে এটাও মানিয়ে নেয়ার মতো।  

পারফর্মেন্স (Performance):

ফোনটিতে থাকছে 2-GB RAM এবং 16-GB ইন্টারন্যাল স্টোরেজ। আর এর স্টোরেজটা হচ্ছে “EMMC 5.1”। এই ফোনে শুধু একটা জিনিসের সমস্যা, তা হচ্ছে Fingerprint Reader।  যারা Fingerprint Reader ব্যবহার করে অভ্যস্ত, তাদের কাছে এই ফোনটি অপরিপূর্ন মনে হবে। বডির পেছনে Fingerprint নেই তবে এর ফাস্ট Face-Unlock সেটিকেও পুষিয়ে দেয় যদি ভালো Lighting system থাকে। 

Gaming এর কথা যদি আমরা বলি, সে ক্ষেত্রে আমরা বলব এটা কিন্তু গেমিং ডিভাইস না।  তবে বেসিক যে গেমস গুলো রয়েছে সেগুলো আপনারা খেলতে পারবেন Smoothly কোন সমস্যা হবে না। কিছু Hard Games আপনি এই ডিভাইসে খেলতে পারবেন। আমরা পরীক্ষা করার জন্য এই ডিভাইসে পাবজি গেমস ইনস্টল করি তবে সেটা Low Graphics খুব সুন্দর ভাবে চলবে।  তবে Graphics যদি Medium কিংবা তারও উপরে দিতে চান সে ক্ষেত্রে সমস্যা ফেস করতে হবে।  

ক্যামেরা (Camera):

এই ফোনটিতে পিছনে Dual Camera ব্যবহার করা হয়েছে 13 + 2 Megapixel এবং এই ক্যামেরায় তোলা ছবি গুলো Decent ছিল। ভালো লাইটে ছবি গুলো অনেক Colorful হয়। তবে Light কম হলে ছবির কোয়ালিটি একটু খারাপ হয়, যা বাজেট ফোন হিসেবে মানিয়ে নেয়ার মত। এবং পিছনের ক্যামেরা দিয়ে [email protected]এ ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। নিচে কিছু ছবির স্যাম্পল দেওয়া হল।

সামনে রয়েছে 5-Megapixel Front ক্যামেরা,  সেলফি তোলার জন্য। এবং সামনের ক্যামেরা দিয়ে [email protected]এ ভিডিও রেকর্ড করতে পারবেন। নিচে কিছু ছবির স্যাম্পল দেওয়া হল।

ব্যাটারি (Battery):

এই ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে 4000mAh Battery যা দিয়ে রেগুলার ব্যবহারে Easily 1-2Days Fully ব্যাকাপ পাওয়া যাবে। যা এই ফোনের জন্য বড় একটি পয়েন্ট। 

আমাদের আজকের “Realme C2” নিয়ে এ পর্যন্তই আলোচনা। আশা করি আমাদের এই আর্টিকেলটি আপনার ভালো লেগেছে কিংবা আমাদের এই আর্টিকেল এর মাধ্যমে আপনি কিছু জানতে পেরেছেন। যদি বিন্দুমাত্র আমাদের এই আর্টিকেল দ্বারা আপনার উপকার হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই কমেন্টের মাধ্যমে জানাবেন এবং এই আর্টিকেলটি আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে একদমই ভুল করবেন না।

দেখা হচ্ছে পরবর্তী আর্টিকেলে সে পর্যন্ত সবাই ভাল থাকুন। ধন্যবাদ। 

Leave a Reply

avatar
  Subscribe  
Notify of